kolkata news
Highlights

  • আবার উদ্ধার হল এক মহিলার পচাগলা দেহ
  • পশ্চিম মেদিনীপুরের মেদিনীপুর সদর ব্লকের অন্তর্গত হেতাশোলের জঙ্গলে মিলল ওই মহিলার পচে যাওয়া দেহ
  • স্থানীয়দের অনুমান, ধর্ষণের পর খুনের ঘটনা ঘটেছে


নিজস্ব প্রতিনিধি, মেদিনীপুর:
আবার উদ্ধার হল এক মহিলার পচাগলা দেহ। পশ্চিম মেদিনীপুরের মেদিনীপুর সদর ব্লকের অন্তর্গত হেতাশোলের জঙ্গলে মিলল ওই মহিলার পচে যাওয়া দেহ। দেহটি উদ্ধার করল গুড়গুড়িপাল থানার পুলিশ৷ শিকারে বেরিয়ে লোকালয় থেকে প্রায় এক কিমির বেশি গভীর জঙ্গলের ভেতরে ওই মহিলা দেহ পড়ে থাকতে দেখেছিলেন আদিবাসীরা৷ বহস্পতিবার সন্ধায় দেহটি দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিলে শুক্রবার পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করেছে৷

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকেই গুড়গুড়িপাল থানার অন্তর্গত বিভিন্ন গ্রামের আদিবাসীরা শিকারে বেরিয়েছিলেন৷ তাঁরা হেতাশোলের জঙ্গলের গভীরে গিয়ে এক মহিলা নগ্ন দেহ পড়ে থাকতে দেখেন৷ দেহটিতে পচন ধরে গিয়েছিল৷ দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল৷ আদিবাসীরা দেহটি দেখতে পেয়ে সিভিক পুলিশের মাধ্যমে গুড়গুড়িপাল থানার পুলিশকে জানান৷ রাতে আর না বেরিয়ে শুক্রবার সকালে সেখানে হাজির হয় পুলিশ। পুলিশ গিয়ে দেখে লোকালয় থেকে খানিকটা দূরে গভীর জঙ্গলের ভেতরে পচন ধরা দেহটি পড়ে রয়েছে৷ পাশেই পড়েছিল মহিলার জুতো, জলের বোতল বেশ কিছু জিনিস৷

স্থানীয়দের অনুমান, কেউ খুন করে ফেলে যাওয়া সময় আগুন লাগিয়ে দিয়েছিল শরীরে৷ তবে শরীরে পচন ধরে যাওয়ায় তা পরিষ্কার বোঝা যায়নি।স্থানীয় যুবক অমৃত মাহাতো বলেন, ‘আদিবাসীরা শিকারে বেরিয়ে দেহটি পড়ে থাকতে দেখেছিলেন বৃহস্পতিবার বিকালে৷ আমরা জানতে পেরে আজ সকালে এসে দেখি দেহটি পড়ে রয়েছে৷ দেখে মনে হয়েছে, খুন করে পোড়ানো হয়েছে দেহটি৷ কারণ, পড়ে থাকা রুমালের কিছুটা পোড়া ছিল৷ তবে পুরো দেহটাই পচে গিয়েছে অনেকটা৷’

স্থানীয়রা কেউ নিখোঁজ রয়েছে কিনা তার তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। স্থানীয়দের ধারণা, বছর তিরিশের এই মহিলা হয়তো বহিরাগত বা বাইরে থেকে কেউ এনে খুন করে ফেলে গিয়েছে৷ ঘটনায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে৷ স্থানীয়দের অনুমান, ধর্ষণের পর খুনের ঘটনা ঘটেছে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে পুলিশ বিষয়টি নিয়ে কিছু জানায়নি সংবাদ মাধ্যমের সামনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here