ডেস্ক: গলায় ছুরি ঠেকিয়ে স্বামীর হাত পা বেঁধে তাঁর স্ত্রীকে ধর্ষণ করল প্রতিবেশী দুই যুবক। এই ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে, কোচবিহার জেলার শীতলকুচি থানার বড় মধুসুদন গ্রামে। মঙ্গলবার এই ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়ের পর ইতিমধ্যেই দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সূত্রের খবর, গত ৩০ জুন ওই মহিলার দেবরের বৌভাত ছিল। ওইদিন রাত একটা নাগাদ বৌভাত শেষে স্বামী ও দুই ছেলে মেয়েকে নিয়ে তারা শ্বশুরবাড়ি থেকে কিছু দূরে নিজেদের বাড়িতে আসে। রাতে ঘুমিয়ে পড়লে আড়াইটে নাগাদ প্রতিবেশি দুই যুবক সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে ছুরি দেখিয়ে স্বামীর হাত পা বাধে। এরপর গলায় ছুরি ঠেকিয়ে পর পর দুজন ধর্ষন করে ওই মহিলাকে। সেসময় মহিলা চিৎকার করলেই বাইরে বৃষ্টি থাকায় প্রতিবেশিরা চিৎকার শোনেনি। সকাল হতেই বিষয়টি জানাজানি হয়, অভিযুক্ত দুই যুবক এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় স্থানীয় তৃনমূল নেতারা বিষয়টি ধামাচাপা দিতে উদ্যোগী হয়। এমনকি গ্রামে সালিশি সভাও বসে বলে অভিযোগ।

সালিশি সভায় কোনও সমাধান না হওয়ায় মঙ্গলবার রাতে শীতলকুচি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা। অভিযোগ পেয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয় পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় কৃষ্ণ বর্মন ও পিঙ্কু বর্মন নামে দুই অভিযুক্তকে। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এলাকার বাসিন্দা তথা তৃণমূল এর কোচবিহার জেলা পরিষদ সদস্য অশোক রায় বলেন, ‘ঘটনার খবর পেয়ে ওই বাড়িতে গিয়েছিলাম। দুই অভিযুক্তকে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে সালিশি সভার অভিযোগ ঠিক নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here