ডেস্ক: বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার যতই বলুক, জঙ্গলরাজের অবসান ঘটিয়ে সুশাসন প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চলছে, তা কিন্তু বাস্তবে প্রতিফলিত হচ্ছে না। চলতি মাসের গোড়াতেই বিহারের কৈমুরে একটি মেয়ের শ্লীলতাহানির ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। এর আগে জেহানাবাদের শ্লীলতাহানির ঘটনার ভিডিও দেখে শিউরে উঠেছিল সবাই। ফের একবার বিহারে তরুণীর শ্লীলতাহানির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ল। ঘটনাটি ঘটেছে মোতিহারিতে। সাতজন দুষ্কৃতী মিলে মেয়েটির ওপর অত্যাচার চালায় এবং সেই ঘটনার ভিডিও রেকর্ডিং করে। এইপর তারা মেয়েটির বাবার কাছে ৫০ লক্ষ টাকা দাবি করে। দুষ্কৃতীরা জানায়, দাবি মতো টাকা দিতে না পারলে তারা এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেবে। তাদের দাবি মতো টাকা দিতে না পারায় সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেয়।

ভিডিওতে তরুণীর সঙ্গে একটি ছেলেকে দেখা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই তরুণ মেয়েটির বন্ধু। ভিডিওতে ওই তরুণ এবং তরুণীকে ঘিরে দুষ্কৃতীদের তাণ্ডবের দৃশ্য দেখা গিয়েছে। তাদের নিগ্রহের পাশাপাশি দুষ্কৃতীদের কটূক্তি শোনা গেছে। সবচেয়ে চমকে যাওয়ার বিষয় হল এই যে, দুষ্কৃতীরা নিজেদের সমাজসংস্কারক হিসেবে দাবি করছে। এই ঘটনার পর মেয়েটির বাবা সোজা আদালতে গিয়ে মামলা দায় করেছে তাদের বিরুদ্ধে। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here