kolkata news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্র নির্দেশিকায় স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেনের টিকিটের ভাড়া ৮৫ শতাংশ বহন করবে কেন্দ্র, বাকি ১৫ শতাংশ চাইলে রাজ্য সরকার বহন করতে পারে। ইতিমধ্যেই সব বিজেপি শাসিত রাজ্য সেই খরচ বহন করবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর। তারপরেও বিজেপি শাসিত দুই রাজ্য গুজরাট ও কর্ণাটকের শ্রমিকদের ট্রেনের টিকিটের ভাড়া দিতে হয়েছে বলে অভিযোগ।

সোমবার রাতে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর ট্যুইট করে জানান, ‘প্রায় প্রতিটি রাজ্যই শ্রমিকদের টিকিটের খরচ বহন করছে। কেবল রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার, কেরলের কমিউনিস্ট সরকার ও মহারাষ্ট্রের শিবসেনার জোট সরকার শ্রমিকদের খরচ বহন করবে না। এটা কংগ্রেসি রাজনীতি। এই ধরণের রাজনীতিকে ধিক্কার।’ কিন্তু অভিযোগ বিজেপি শাসিত দুই রাজ্য কর্ণাটক ও গুজরাটের শ্রমিকদের থেকেই নাকি টিকিটের ভাড়া নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, যাবতীয় বিতর্কের শুরু সোমবার সকালে। সরকার পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করলেও ট্রেনের টিকিটের টাকা নাকি শ্রমিকদের দিতে হবে। সম্প্রতি এই অভিযোগ তোলে কংগ্রেস। সেই মতো সকল শ্রমিকদের খরচ কংগ্রেস দেওয়ার অঙ্গীকারও করে। এরপর রাহুল গান্ধী এই নিয়ে মোদী সরকারকে খোঁচা মারতেও ছাড়েননি। কিন্তু পাল্টা বিজেপি নেতা সম্বিত পাত্র জানিয়ে দেন, শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর ভাবনা সরকারের। এই নিয়ে কংগ্রেসকে না ভাবলেও হবে।

ট্যুইটারে সম্বিত পাত্র লেখেন, ‘রাহুল গান্ধীজি আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের গাইডলাইন দিচ্ছি। ভালো করে দেখুন বলা আছে কেন্দ্র শ্রমিকদের ট্রেনের ৮৫ শতাংশ ভাড়া দেবে। বাকি ১৫ শতাংশ চাইলে রাজ্য সরকারগুলি দিতে পারে। ইতিমধ্যেই মধ্যপ্রদেশ সরকার সেই ভাড়া দেবে। কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলিকেও এই কাজ করতে বলুন।’

সম্বিত এই কথা বললেও সম্প্রতি এই নিয়ে রেলের তরফ থেকে একটা গাইডলাইনে সব রাজ্য সরকারকে শ্রমিকদের থেকে টিকিটের ভাড়া সংগ্রহ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। আর এরপরেই এই নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। টিকিটের ভাড়া আদৌ দিতে হবে কিনা, দিলেও কত টাকা দিতে হবে সেই নিয়ে কিন্তু প্রান্তিক শ্রমিকদের মনে অনেক প্রশ্ন তৈরি হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here