kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: করোনা মহামারির হাত থেকে বিশ্বকে রক্ষা করতে এবার রক্ষাকালীর পুজোর আয়োজন হল হাওড়ায়। শনিবার রাতে ওই পুজোর আয়োজন করা হয়। পুজোর হোমকুণ্ডে চিনা প্রোডাক্ট পুড়িয়ে লাদাখের ঘটনার প্রতিবাদ জানান হাওড়ার উমেশ ব্যানার্জি লেনের ওই পুজো উদ্যোক্তারা। সেখানে শ্রদ্ধা জানানো হয় লাদাখের ঘটনায় নিহত সেনা জওয়ানদের প্রতিও। এছাড়া করোনা যুদ্ধের সৈনিক চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সাফাইকর্মী, সাংবাদিক-সহ সকলকে সংবর্ধনা জানানো হয়।

দিনে দিনেই বাড়ছে কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ। ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা হাওড়া জেলায় ২ হাজার ছাড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মধ্য হাওড়ার উমেশ ব্যনার্জী লেনের বাসিন্দারা করোনা রুখতে রক্ষাকালী পুজোর আয়োজন করেন। পুরাণ মতে, নানানরূপী কালীর হাজার এক নাম। দেবী কালিকা মহামারী, অনাবৃষ্টি, দুর্ভিক্ষ ইত্যাদি যে কোনও সামাজিক বিপর্যয়ে যখন পূজিত হন, তখন তিনি রক্ষাকালী। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, এলাকায় অনেকেই কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অনেকেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এরপরেও যাতে এলাকায় আর করোনা সংক্রমণ না ছড়ায় তাই শনিবার এলাকায় রক্ষাকালী পুজার আয়োজন করা হয়।

মাস্ক,  স্যানিটাইজার,  সামাজিক দুরত্ব বিধি,  কোন কিছুতেই ঠেকানো যাচ্ছে না করোনাকে। তাই এবারে শেষ ভরসা হিসাবে মা রক্ষাকালীর শরণাপন্ন হয়েছেন এলাকার মানুষ। গোটা পৃথিবীতেই ভয়াবহ অতিমারি রূপে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।  তাই এবার রক্ষাকালী মায়ের আশীর্বাদ পেতে এই পুজোর আয়োজন। স্থানীয় বাসিন্দারা আরও জানান, এলাকায় করোনা তাড়াতে রক্ষাকালী পুজোর পাশাপাশি এদিন এলাকার যে সব বাসিন্দা করোনা সংক্রমণের পরে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তাদেরও সংবর্ধনা দেওয়া হয়। চিনা হামলায় শহিদ ২০ জন সেনার উদ্দেশে শ্রদ্ধা নিবেদনও করা হয়। লাদাখের ঘটনার প্রতিবাদে হোমকুণ্ডে চিনা দ্রব্য পোড়ানো হয় এদিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here