national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠছে গোটা দেশে। এহেন পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীর প্রতি আরো মানবিক হয়ে উঠলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। গ্রাম থেকে শুরু করে শহর রাজ্যের সমস্ত মানুষকে রেশন কার্ড ছাড়াই খাবার দেওয়ার কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন তিনি। এবার রাজ্যে অবস্থিত আশ্রয়হীন মানুষগুলির প্রতি সদয় হয়ে উঠলেন তিনি। এদিন সরকারি ভাবে জানিয়ে দিলেন, কঠিন এই পরিস্থিতিতে এই সমস্ত মানুষকে রেশন কার্ড ছাড়া রেশন তো বটেই, সঙ্গে তাদের ১০০০ টাকা করে দেবে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

করোনা পরিস্থিতির মাঝে টিম ইলেভেনের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় প্রত্যেকে আপৎকালীন রেশন কার্ড বানানোর নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি শহর ও গ্রামে যে সমস্ত আশ্রয়হীন মানুষ রয়েছেন তাদেরকে ১০০০ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেন তিনি। পাশাপাশি এই পরিস্থিতিতে যদি কোনো আশ্রয়হীন মানুষের মৃত্যু হয় তবে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য ৫০০০ টাকা করে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর এহেন ঘোষণায় যারপরনাই খুশি উত্তরপ্রদেশের আশ্রয়হীন বিপুল সংখ্যক মানুষ।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নির্দেশে, সোমবার থেকেই রাজ্যের ১৮ কোটি মানুষের জন্য আবারও বিনামূল্যে খাদ্যশস্য বন্টন শুরু করা হয়েছে। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় নিঃস্বদের পর্যাপ্ত রেশন দেওয়ার এবং আপৎকালীনভাবে তাদের রেশন কার্ড তৈরি করার আদেশ দেওয়া হয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েতের তহবিলে অর্থ না থাকলেও দরিদ্রদের সহায়তা যেন বন্ধ না করা হয় সে বিষয়ে স্পষ্ট নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে জেলাশাসকের তরফে আপদকালীন পরিস্থিতিতে অর্থ সরবরাহ করা হবে। পরে সেই অর্থ মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ফেরত দেওয়া হবে।

পাশাপাশি, উত্তরপ্রদেশে যদি কোনও অসহায় মানুষের আয়ুষ্মান ভারত যোজনা বা মুখমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য যোজনা না থাকে এবং সেই ব্যক্তি যদি অসুস্থ হন তবে পঞ্চায়েত তহবিল বা পৌরসভার তহবিল থেকে আপৎকালীন ভাবে অসুস্থ ব্যক্তি কে ২০০০ টাকা দেওয়া হবে। একই সঙ্গে করোনাভাইরাস কিংবা কোনো কারণে যদি কোন আশ্রয়হীন ব্যক্তির মৃত্যু হয় সে ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য তার পরিবারকে ৫০০০ টাকা দেবে রাজ্য সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here