মহানগর ওয়েবডেস্ক: শেষ ২৪ ঘন্টায় বাইশ গজের একটি ঘটনা রীতিমতো চর্চায়। ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে পাকিস্তান।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের ইনিংস চলাকালীন ম্যাচের ৭১ নম্বর ওভারে সরফরাজ আহমেদ জল আর জুতো বয়ে নিয়ে আসেন মাঠে। এই ম্যাচে দ্বাদশ ব্যক্তির ভূমিকায় তিনি। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতানো প্রাক্তন পাক অধিনায়কের সঙ্গে টিম ম্যানেজমেন্টের এই ব্যবহার মোটেই ভাল চোখে দেখলেন না শোয়েব আখতার।

প্রাক্তন পাক পেসার কড়া ভাষায় নিন্দা করলেন এই ঘটনার। তিনি বলছেন, “এই দৃশ্য মোটেই ভাল নয়। করাচির ছেলেটাকে যদি দৃষ্টান্ত হিসেবে দেখানো হয়ে থাকে তাহলে বলব ভুল। সরফরাজ চার বছর দলটার নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি দিয়েছে। তাকে দিয়ে জুতো বয়ে আনানো যায় না। ও যদি নিজে থেকে এটা করে থাকে তাহলে ওকে থামান উচিত। ওয়াসিম আক্রম কোনওদিন আমার জন্য জুতো নিয়ে আসেনি মাঠে।”

আখতার আরও বলেছেন, “এই ঘটনা বুঝিয়ে দেয় সরফরাজ কত’টা দুর্বল চরিত্রের। ও যেভাবে জুতো বয়েছে, ঠিক একই ভাবে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছে। এই জন্যই মিকি আর্থার ওর ওপর আধিপত্য ফলিয়েছে। জুতো বয়ে আনায় সমস্যা নেই। কিন্তু প্রাক্তন অধিনায়কের পক্ষে এটা শোভনীয় নয়।”

আক্তারের ঠিক উল্টো সুরে কথা বলছেন তাঁর প্রাক্তন সতীর্থ মিসবা-উল-হক। বর্তমান পাকিস্তান দলের কোচ ও জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক বলছেন, “পাকিস্তান বলেই এসব আলোচনা হচ্ছে। আমিও অধিনায়ক থাকাকালীন দ্বাদশ ব্যক্তির কর্তব্য পালন করেছি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচে আমি মাঠের বাইরে ছিলাম। এতে কোনও লজ্জা বা অসম্মানের ব্যাপার নেই। সরফরাজ অসাধারণ একজন মানুষ। ও এই ব্যাপারটা খারাপ ভাবে দেখেনি। এটা ভাল দলের পরিচয়।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here