kolkata bengali news, district news

নিজস্ব প্রতিবেদক, কল্যাণী: ফেসবুকে প্রথম পরিচয়৷ ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমেই কথা শুরু হয়৷ একে-অপরের প্রথম সাক্ষাত্ হয় ফেসবুকের ভিডিয়ো কলের মাধ্যমে৷ তারপর ভিডিয়ো কল থেকে মোবাইল নম্বর নিয়ে নিয়মিত কথা শুরু হয়৷ এভাবে বেশ কিছুদিন চলতে-চলতে নিজেদের অজান্তে প্রেমে পড়ে যান নদিয়ার চাকদহ থানার শিমুরালী নতুন কৌতুকপুর এলাকার ৩২ বছরের সৌরভ বৈদ্য এবং সিলিন্দা এলাকার ৩০ বছর বয়সী রূপা দাস৷ কিন্তু এঁদের প্রেমের পরিণতি সুখকর হল না৷ সামাজিক অনুশাসনের জেরে রূপাকে বিয়ে করতে না পেরে আত্মঘাতী হলেন যুগলে!

পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে চাকদহ থানার রুকপুর রেলগেটের কাছ থেকে সৌরভ বৈদ্য ও রূপা দাসের নিথর দেহ উদ্ধার হয়েছে৷ রানাঘাট জিআরপি পুলিশই দেহ দুটি উদ্ধার করেছে৷ এঁরা আত্মহত্যা করেছেন বলেই রেলপুলিশের প্রাথমিক অনুমান৷ তবে এর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে৷

তবে পুলিশের মতে, সৌরভ এবং রূপার আত্মঘাতী হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি৷ কেননা শিমুরালী নতুন কৌতুকপুর এলাকার বাসিন্দা সৌরভ বৈদ্য বিবাহিত৷ তিনি স্ত্রী অর্চনাকে ছেড়ে দিয়ে স্বামীর কর্তব্যের অবহেলা করতে পারছিলেন না৷ ফলে রূপার সঙ্গে সম্পর্কের কথা তিনি পরিবারের কাউকে জানাতে পারেননি৷ কিন্তু রূপাকে ছাড়তেও পারছিলেন না৷ জীবিত অবস্থায় সৌরভ-রূপার সামাজির স্বীকৃতি পাওয়া যে সহজ নয়, তা তাঁরা দুজনেই টের পেয়েছিলেন৷ তবে জীবিত অবস্থায় মিলিত হতে না পারলেও মৃত্যুর পরে তাঁদের এক হতে কেউ আটকাতে পারে না৷ হয়ত সেই আশাতেই সৌরভ ও রূপা একসঙ্গে আত্মঘাতী হন৷ প্রাথমিকভাবে এমনটাই মনে করছে চাকদহ জিআরপি৷

পুলিশের অনুমান, রূপার সঙ্গে চরম পরিণতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েই বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল সৌরভ৷ তাই সে বেরোনোর সময় সত্যিকথা কাউকে জানাতে পারেননি৷ সৌরভের স্ত্রী অর্চনা বৈদ্য জানান, বৃহস্পতিবার সকালে সৌরভ কাজে যাওয়ার নাম করেই বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল। রাত পর্যন্ত বাড়ী না ফেরায় বার-বার তাকে ফোন করা হয়৷ কিন্তু সারারাত চেষ্টা করেও তার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি৷ তারপর এদিন সকালে এলাকাবাসীই রেললাইনের ধারে দু’জনকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়৷ এভাবে দুই যুবক-যুবতীর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷ তবে স্বামীর যে রূপার সঙ্গে বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কে আবদ্ধ ছিল এবং তার জেরেই তারা আত্মঘাতী হয়েছে, তা বিশ্বাস করতে পারছেন না অর্চনা৷ কান্নায় ভেঙে পড়েছেন তিনি৷ তাঁকে সান্ত্বনা দিয়ে গোটা ঘটনা তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ৷

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here