ঘরের মেঝে, আলমারি, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিনে ইংরেজিতে বার্তা রেখে আত্মহত্যা যুবকের

0
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, মেদিনীপুর: এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার হল মেদিনীপুর শহরের একটি ভাড়া বাড়ি থেকে। দুদিন ধরে ভেতর থেকে বাড়ির দরজা বন্ধ থাকার কারণে বাড়ি মালিকের সন্দেহ হয়েছিল। পুলিশকে খবর দিতে পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে মৃতদেহ উদ্ধার করল শনিবার। যুবকের হাতের শিরা কাটা ছিল ও তার দেহ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিল। পাশেই বিদ্যুতের তারও পড়েছিল। বাড়িতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছিলে বিভিন্ন জিনিসপত্র। মৃতদেহের পাশে ঘরের মেঝে ও বিভিন্ন জিনিসপত্রে কালো স্কেচ পেন দিয়ে লেখা রয়েছে, ‘আমার মৃত্যুর পর এই সমস্ত জিনিসপত্র সুতপা নাগকে যেন পাঠিয়ে দেওয়া হয়।’ ঘরের মেঝে, আলমারি, ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন সহ বিভিন্ন জিনিস পত্রে একই রকম বার্তা ইংরেজিতে দিয়ে রেখেছে ওই যুবক। শনিবার বেলা ১১ টার পর এই কাণ্ডে মেদিনীপুর শহরের কালগাঙ এলাকায় একটা চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিষেক কর নামের ওই যুবক মেদিনীপুর শহরের কালগাঙ এলাকার ওই বাড়িটিতে এক মাস আগে ভাড়ায় এসে উঠেছিল। নিজেকে ইঞ্জিনিয়ার পরিচয় দিয়েছিল সে। মেদিনীপুর শহরে কোথাও কাজ করতো বলে জানিয়েছিল সে। বাড়ি মালিকের কাছ থেকে খবর পেয়ে কতোয়ালী থানার পুলিশ শনিবার দরজা ভেঙে দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পাঠিয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান প্রেমঘটিত কোন কারণে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে। এ জন্য আত্মহত্যা করতে হাতের শিরা কাটা ও বিদ্যুতের শক নেওয়া দু’রকম পদ্ধতি সম্ভবত সে ব্যবহার করেছিল। পুরো ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ বাড়ি মালিককে জেরা শুরু করেছে।

উল্লেখ্য মেদিনীপুর শহরে গত কয়েক মাস ধরে অস্ত্র সহ ভিন্ন রাজ্যের দুষ্কৃতীরা ধরা পড়ছে। কেন এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র মেদিনীপুর শহরে এনে জমা করা হচ্ছিল সেই ঘটনা এখনও তদন্ত করে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তারই মাঝে এই যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু তাদের আরও পরীক্ষার মধ্যে ঠেলে দিল। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান ওই যুবক আত্মহত্যাই করেছে। তবে এই ঘটনার পিছনে অন্য কারও কোন হাত আছে কিনা সেটাও তারা খতিয়ে দেখছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here