চাকলায় লোকনাথের মাথায় ঢালার জন্য জল আনতে গিয়ে গঙ্গায় তলিয়ে গেল তরুণ

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, বনগাঁ: লোকনাথ মন্দিরে জল ঢালা নিয়ে যেন মৃত্যুর মিছিল পড়েছে! কচুয়ার পর এবার চাকলা। জন্মাষ্টমী উপলক্ষে লোকনাথ বাবার মাথায় জল ঢালার জন্য মন্দিরের অদূরে চাকলার গঙ্গায় নেমে তলিয়ে গেল বনগাঁর এক তরুণ। শুক্রবারের এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ জানায়, মৃতের নাম আকাশ দাস। বনগাঁ পাইপ রোড এলাকার বাসিন্দা আকাশ একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিল। এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে আকাশের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন বনগাঁর বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কচুয়ার মত চাকলাতেও লোকনাথ বাবার মন্দিরে জন্মাষ্টমীতে লোকনাথ পুজোর আয়োজন করা হয়। বহু মানুষ লোকনাথ বাবার মাথায় জল ঢালতে যান। শুক্রবার বনগাঁ ১২-র পল্লী লোকনাথ মন্দির কমিটির পক্ষ থেকেও পুণ্যার্থীরা চাকলায় লোকনাথ মন্দিরে গিয়েছিলেন। আকাশও গিয়েছিল। সে লোকনাথ বাবার মাথায় ঢালার জন্য চাকদার গঙ্গায় জল আনতে নামে। তারপর আর ওঠেনি। বহু খোঁজাখুঁজির পর রাতের দিকে গঙ্গা থেকে তার নিথর দেহ উদ্ধার হয়। তারপর তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার চিকিত্সকরা আকাশকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আকাশের অকাল-মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে। আকাশের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বনগাঁ ১২-র পল্লী লোকনাথ মন্দির কমিটির চেয়ারম্যান তথা বনগাঁর বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস বলেন, ‘আকাশ বয়সে ছোট হলেও মন্দির কমিটির একনিষ্ঠ সদস্য ছিল। তার মৃত্যু আমাদের কাছে অপূরণীয় ক্ষতি। আমরা ক্লাবের পক্ষ থেকে সবসময় আকাশের পরিবারের পাশে থাকব।’

উল্লেখ্য, জন্মাষ্টমী উপলক্ষে লোকনাথের মাথায় জল ঢালতে এবার কচুয়ায় রেকর্ড সংখ্যক ভিড় হয়েছিল। তুমুল বৃষ্টি উপেক্ষা করে বৃহস্পতিবার মাঝরাত থেকে পুণ্যার্থীরা মন্দিরে জল ঢালতে যান। অগণিত পুণ্যার্থীর ভিড় আর তুমুল বৃষ্টিতে শুক্রবার ভোররাত তিনটে নাগাদ মন্দিরের পাশের পাঁচিল ভেঙে পড়ে। আহত হন বহু পুণ্যার্থী। পুকুরেও পড়ে যান অনেকে। তারপর ভিড় হটাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে দৌড়াদৌড়ি শুরু করে দেন পুণ্যার্থীরা। তখনই পদপিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় তিন জনের। গুরুতর আহত হন কমপক্ষে ১৬ জন। পরে হাসপাতালে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here